ভিন্ন প্রতীকে নির্বাচনে বিএনপি নেতারা

বিশেষ প্রতিনিধি ও আশিক মিয়া
ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয়ভাবে বিএনপি অংশ না নিলেও দোয়ারার ৯ ইউনিয়নের ৭ টিতেই বিএনপি’র পদধারী শক্তিশালী নেতারা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এরমধ্যে ৪ জন বর্তমান চেয়ারম্যানও রয়েছেন। ভিন্ন প্রতীকে নির্বাচনে লড়বেন এরা। এজন্য এই উপজেলায় নির্বাচনী লড়াই জমে ওঠবে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা। আগামী ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় দফায় অনুষ্ঠিত হবে এই ইউনিয়নগুলোর নির্বাচন। রবিবার ইউনিয়নগুলোর প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।
দোয়ারাবাজার উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক শামছুল হক নমু নরসিংহপুর ইউনিয়নে মনোনয়ন দাখিল করেছেন। এই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান নূর উদ্দিন আহমদ, এছাড়া স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মো. কামরুজ্জামান ভুইয়া, মো. ফজলুর রহমান, মো. স্বপন মিয়া ও মো. নুরুল আমিন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। মো. মাইনুদ্দিন নামের একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন।
জেলা বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক দোয়ারাবাজার সদর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল বারী ও বিএনপি’র অঙ্গসংগঠন যুবদলের নেতা মো. মামুন মিয়া দোয়ারাবাজার সদর ইউনিয়নে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন মো. আব্দুল হামিদ, মনোনয়ন জমা দিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা আবুল মিয়া।
সুরমা ইউনিয়নে দোয়ারাবাজার উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ মনোনয়ন জমা দিয়েছেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী এমএ হালিম বীরপ্রতীক।
লক্ষীপুর ইউনিয়নে স্থানীয় বিএনপি নেতা আতাউর রহমান স্বপন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন, এই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন আব্দুল কাদির, এছাড়া বর্তমান চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আমিরুল হক ও গেল নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী জহিরুল ইসলাম মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।
বোগলাবাজারের বর্তমান চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা আরিফুল ইসলাম জুয়েল মনোনয়ন জমা দিয়েছেন, এই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন মিলন খান।
মান্নারগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা আবু হেনা আজিজ, স্থানীয় বিএনপি নেতা ইজ্জত আলী ও আব্দুল খালেক মনোনয়ন জমা দিয়েছেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হয়েছেন অসিত কুমার দাস, স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা আব্দুল হান্নান, বরুণ চন্দ্র দাশ, মো. শাহাবুদ্দিন, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের নেতা জামাল উদ্দিন ও বিজিত রঞ্জন চক্রবর্তী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। আলী আহমদ তালুকদার নামের আরেক প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।
পা-ারগাঁও ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান জেলা বিএনপির নেতা ফারুক আহমদ ও স্থানীয় বিএনপি নেতা অলিউর রহমান মনোনয়ন জমা দিয়েছেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন আব্দুল ওয়াহিদ, এছাড়া আওয়ামী লীগ নেতা হাবিবুর রহমান, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের নেতা মো. হুমায়ুন কবীর মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এছাড়া মাইনুল হক ও মো. আশরাফ আলী নামের আরো দুই প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।
বাংলাবাজার ও দোহালিয়া ইউনিয়নে বিএনপির কেউ মনোনয়ন জমা দেন নি। তবে আওয়ামী লীগের পদধারীদের অনেকে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।
বাংলাবাজার ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হয়েছেন মো. মানিক মিয়া, মনোনয়ন জমা দিয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক জসিম আহমেদ চৌধুরী, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আবুল হোসেন, ওমর ফারুক, মো ইব্রাহিম খান, আবুল হাসনাত ও জাপা নেতা আবু সালেহ।
দোহালিয়া ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আনোয়ার মিয়া আনু আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এছাড়াও মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নূর মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের একাংশের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. শামীমুল ইসলাম ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মো. আব্দুল রাজ্জাক। এছাড়া স্থানীয় সমাজকর্মী কাজী ফয়েজ মিয়া ও বাবুল মিয়া মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।
দোয়ারাবাজার প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি এমএ করিম লিলু বললেন, বিএনপি নির্বাচনে না গেলেও দোয়ারাবাজারে বিএনপি নেতারা নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। আওয়ামী লীগের শক্তিশালী বিদ্রোহী প্রার্থীরাও মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এজন্য এই উপজেলার সকল ইউনিয়নেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা জমবে।
জেলা বিএনপির সভাপতি ছাতক- দোয়ারার সাবেক সংসদ সদস্য কলিম উদ্দিন আহমদ মিলন বললেন, বিএনপি নির্বাচনে যায় নি, দলীয় প্রতীকও দেয় নি। নির্বাচনে অংশগ্রহণ যারা করেছেন, নিজ নিজ দায়িত্বে করেছেন। দলীয়ভাবে কারও নির্বাচনে সম্পৃক্ত হবার সুযোগ নেই।
জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন বলেছেন, আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীদের দলীয় প্রার্থীদের পক্ষেই থাকতে হবে। দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে অবস্থানকারীদের বিরুদ্ধে বহিস্কারসহ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।