ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্দেশনা মানছে না পেঁয়াজ বিক্রেতারা

স্টাফ রিপোর্টার
ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্দেশনা মানছে না পেঁয়াজ বিক্রেতারা। গত সোমবার বিকালে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৫০-৬০ টাকা দরে বিক্রি করার নির্দেশ দেন। মঙ্গলবার সকালে বাজার ঘুরে দেখা গেছে দোকানীরা পেঁয়াজ বিক্রি করছেন ১৪০-১৮০ টাকা দরে।
সরেজমিনে গিয়ে শহরের জেল রোড, জগন্নাথবাড়ি, স্টেশন রোড এলাকার এমন চিত্র দেখা গেছে।
জগন্নাথবাড়ি এলাকার দোকান অনিল স্টোর ক্রেতাদের কাছে ১৪০ টাকা দরে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি করছেন। মেসার্স লাভলু স্টোর প্রতি কেজি পেঁয়াজ ১৮০ টাকা দরে বিক্রি করছেন। এছাড়াও শাহিনূর স্টোর ক্রেতাদের কাছে ১৬০ টাকা করে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি করছেন।
বাজারে পেঁয়াজ কিনতে আসা সোমপাড়ার বাসিন্দা লিলু দাস বলেন, মানুষের মুখে শুনেছি বাজারে পেঁয়াজ ৬০ টাকা দরে প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে। কিন্তু এসে দেখি ১৪০ টাকা প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। তাই বাসায় ফিরে যাচ্ছি।
ষোলঘরের বাসিন্দা নিমাই সরকার বলেন, প্রশাসন সবাইকে ৬০ টাকা দরে পেঁয়াজ বিক্রির কথা বলে দিলেও তারা বিক্রি করছে অধিক মূল্যে। ক্রেতারা কম মূল্যে পেঁয়াজ বিক্রির জন্য বললে তারা বিক্রি করছে না। আজ সকালে পেঁয়াজ কিনতে গিয়ে দেখি বাজারে ১৭০ টাকা করে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে।
পশ্চিম হাজী পাড়ার বাসিন্দা মো. রিপন মিয়া বলেন, আজ সকালে বাজার থেকে ১৭০ টাকা ধরে ১ কেজি পেঁয়াজ কিনে এনেছি।
প্রসঙ্গত গত সোমবার বিকালে মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করা ও অতিরিক্ত মূল্যে পেঁয়াজ বিক্রি করায় ৪ দোকানীকে ৬০০০ টাকা জরিমানা করা হয়।
বাজার মনিটরিং কর্মকর্তা আব্দুল খালেক বলেন, এ বিষয়ে এনডিসি সহ আমরা বাজারের পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করছি। এখন কিছু বলা যাবে না।