মানুষের প্রয়োজনেই পুস্তক খাতকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে- নাদের বখ্ত

স্টাফ রিপোর্টার
বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতি সুনামগঞ্জ জেলা শাখার বার্ষিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার দুপুর ১২ টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত শহীদ মুক্তিযোদ্ধা জগৎজ্যোতি পাবলিক লাইব্রেরীতে অনুষ্ঠিত সভায় জেলার বিভিন্ন অঞ্চলের পুস্তক ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।
সংগঠনের জেলা শাখার সভাপতিত মিন্টু রায় মিঠু’র সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, সুনামগঞ্জ পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র নাদের বখ্ত।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় পরিচালক ও কেন্দ্রীয় নিতিমালা স্ট্যান্ডিং কমিটির আহবায়ক কাজী জহুরুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় পরিচালক ও সিলেট বিভাগীয় দলনেতা নিরুপ সাহা নিরু, মাওলানা খলিলুর রহমান, মো. নেছার উদ্দিন হালদার, মো. হুমায়ুন কবির, মো. আবুল বাশার ফিরোজ শেখ। প্রধান আলোচক ছিলেন সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি পঙ্কজ দে, সংগঠনের সিলেটের নেতা আব্দুর রহিম।
এছাড়াও বক্তব্য রাখেন- সংগঠনের দিরাই উপজেলা সহসভাপতি কাজী ফিরোজ মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক রুকনুজ্জামান জহুরী, ছাতক উপজেলার সদস্য সাইফুল ইসলাম, দোয়ারা উপজেলার সদস্য আলা উদ্দিন মিয়া প্রমুখ।
প্রধান অথিতির বক্তব্যে পৌর মেয়র নাদের বখ্ত বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্ত খাতের মধ্যে অন্যতম পুস্তক প্রকাশনা ও বিক্রেতাগণ। তিনি বলেন, একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসাবে মনেকরি সৃজনশীল প্রকাশকরাই মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী সময় থেকে এখনো পর্যন্ত মুক্তিযুদ্ধের গৌরবগাঁথা তুলে এনেছেন। মানুষকে জ্ঞান আহরণের সুযোগ করে দেন পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতারা। ডিজিটাল যুগেও বইয়ের খদর আগের মতোই রয়েছে। পড়ুয়ারা বই পড়েই বেশি খুশি। মানুষের প্রয়োজনেই এই খাতকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে। তিনি সুনামগঞ্জ পৌরসভার ক্ষতিগ্রস্ত পুস্তক ব্যবসায়ীদেরকে এইবার বিনা ফি’তে ট্রেডলাইসেন্স প্রদান করার ঘোষণা দেন।
অনুষ্ঠান শেষে কেন্দ্রীয় পরিচালক ও কেন্দ্রীয় নিতিমালা স্ট্যান্ডিং কমিটির আহবায়ক কাজী জহুরুল ইসলাম জহুর পৌর মেয়র নাদের বখ্ত’এর সংগঠনের স্মারকগ্রন্থ তুলে দেন।