মালিকাধীন জায়গায় সড়ক নির্মাণের অভিযোগ

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুরে মালিকানাধীন জায়গার ওপর দিয়ে ইটসলিং সড়ক নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মজলুল হক জগন্নাথপুরের ইউএনও’র নিকট লিখিতভাবে অভিযোগ করেছেন।
অভিযোগপত্র থেকে জানা যায়, উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের বাগময়না গ্রামে কুশিয়ারা নদীর তীরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতাধীন জনসাধারণের যাতায়াতের রাস্তা থাকা সত্বেও বাগময়না গ্রামের বাসিন্দা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মজুলুল হকের মালিকানাধীন পুকুর পাড়ের ওপর দিয়ে বাগময়না গ্রাম পর্যন্ত সরকারিভাবে পিআইও অফিসের অর্থায়নে ইটসলিং সড়ক নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। তবে পিআইপিও অফিস থেকে জানানো হয়েছে, মালিকানাধীন জায়গা দিয়ে সড়ক নির্মাণ করা হচ্ছে না। সরকারি জায়গায় সড়ক নির্মাণ হবে।
বাগময়না গ্রামের বাসিন্দা সাবেক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মজলুল হক জানান, স্থানীয়দের যাতায়াতের সড়ক থাকার পরও আমার জায়গা দিয়ে রাস্তা নির্মাণের পায়তারা চলছে। এটি অন্যায়। এজন্য আমি লিখিতভাবে বিষয়টি ইউএনও বরাবর জানিয়েছি।
জগন্নাথপুর উপজেলা পিআইও কর্মকর্তা শাহাদাৎ হোসেন ভূঁইয়া জানান, মালিকানাধীন কোন জায়গা দিয়ে সড়ক তৈরী করা হচ্ছে না। রানীগঞ্জ বাজার থেকে বাগময়না ঈদগাহ পর্যন্ত ১০০০ মিটার লম্বা ইটসলিং সড়ক করা হচ্ছে টাকা ৬৩ লাখ ৫৮ হাজার টাকা ব্যয়ে। এরইমধ্যে টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। কাজ পেয়েছেন টিকাধারী প্রতিষ্ঠান সুনামগঞ্জের সেসার্স আদহাম এন্ড আরহাম ব্রাদ্রার্স। কাজ চলমান রয়েছে।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাজেদুল ইসলাম বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করা হবে।