মুক্তাখাই গ্রামে কিশোর খুন, ঘাতক গ্রেফতার

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ অফিস
দক্ষিণ সুনামগঞ্জের মুক্তাখাই গ্রামে কিশোর ইমন আহমদ হত্যার ছাতক উপজেলার বড়কাপন গ্রামের দুদু মিয়ার ছেলে প্রধান আসামী সায়মনকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ।
জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে এসআই জয়নাল আবেদীন বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ছাতক থানাধীন জাউয়া বাজার ইউনিয়নের বড়কাপন এলাকা থেকে সেলিম আহমদ সায়মনকে গ্রেফতার করেন। দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা নং ১০, তারিখ ২৫ মার্চ ২০২১।
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কাজী মুক্তাদির হোসেন জানান, থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে ঘাতক সায়মনকে গ্রেফতার করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। আদালতে ১৬৪ ধারায় সে কিশোর ইমনকে হত্যা করার কথা স্বীকার করেছে।
উল্লেখ্য, নিহত মো. ইমন আহমদের মা রুজিনা বেগমের অন্যত্র বিবাহ হওয়ায় সে ছোট বেলা থেকে তার নানা মুক্তাখাই গ্রামের আরজ আলীর বাড়ীতে বসবাস করতো। তার নানার অভাব অনটনের সংসার হওয়ায় মুক্তাখাই গ্রামের মৃত সোনাফর আলীর ছেলে আজাদ মিয়ার বাড়ীতে গরু চড়ানোর কাজ করত এবং রাতের বেলায় তার নানার বাড়ীতে থাকত।
মঙ্গলবার ২৩ মার্চ রাতে মুক্তাখাই পয়েন্টে আজাদ মিয়ার ফার্নিচারের দোকানের কাঠমিস্ত্রী ছাতক উপজেলার বড়কাপন গ্রামের দুদু মিয়ার ছেলে সেলিম আহমদ সায়মন ও নিহত মো: ইমন আহমদ রাতের খাবার শেষে কাঠমিস্ত্রীর প্ররোচনায় ইমন আহমদ কাঠমিস্ত্রী সায়মনের সাথে ফার্নিচারের দোকানে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। রাতে ইমনকে বাটাইল দিয়ে গলার শ্বাসনালী কেটে হত্যা করে পালিয়ে যায় সায়মন। এই হত্যার ঘটনায় ইমন আহমদের মামা মুক্তাখাই গ্রামের আরজ আলীর ছেলে নাসির মিয়া বাদী হয়ে ২৫ মার্চ দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানায় সেলিম আহমদ সায়মনকে প্রধান আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।