মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে আসছেন ৪ দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান

সু.খবর ডেস্ক
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে চার দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান ঢাকায় আসছেন।
এরা হলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপক্ষে, নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভান্ডারী ও ভুটানের রাজা জিগমে খেসার নামগিয়েল ওয়াংচুক।
বুধবার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে গঠিত নিরাপত্তা উপপরিষদের সভা শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামা খান কামাল এ তথ্য জানান। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভা শেষে প্রেস বিফ্রিংয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, আগামী ১৭ মার্চ থেকে ২৬ মার্চ পর্যন্ত ১০ দিনব্যাপী বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠান আয়োজিত হবে। জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। ধারাবাহিকভাবে ১০ দিন অনুষ্ঠান হবে। অনুষ্ঠানে ৪ জন বিদেশি রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান অংশ নেবেন। এছাড়া ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানাবেন। এসব অনুষ্ঠানের ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বিদেশি প্রতিনিধিদের অনুষ্ঠান স্থলে আনা নেওয়া, তাদের যাতায়াতের সময় প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। যে সব হোটেলে তারা থাকবেন সে সব হোটেলের ভেতরে ও বাইরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিদেশি রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানরা যেখানে যেখানে যাবেন সেসব জায়গায় গোয়েন্দা নজরদারি থাকবে।
এদিকে ১০ দিনের অনুষ্ঠানের মধ্যে ৪ দিনের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিরা অংশ নিতে পারবেন। বাকি ৬ দিনের অনুষ্ঠানে কোনা আমন্ত্রিত অতিথি থাকবেন না। এসব অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার হবে। এই আমন্ত্রিত অতিথির সংখ্যা হবে সর্বোচ্চ ৫শ’। যারা আমন্ত্রিত হবেন তাদের ৪৮ ঘণ্টা আগে করোনা পরীক্ষার নেগেটিভ রিপোর্ট দেখিয়ে অনুষ্ঠানে অংশ নিতে হবে, এটা বাধ্যতামূলক বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।
তিনি আরও বলেন, প্যারেড গ্রাউন্ডে একটি কন্ট্রোল রুম থাকবে। ফায়ার সার্ভিস ও জরুরি অ্যাম্বুলেন্স চালু থাকবে। মশা নিধনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এই অনুষ্ঠানে করোনা স্বাস্থ্যবিধির দিকে ব্যাপক গুরুত্ব দেওয়া হবে। যারা অনুষ্ঠানে আসবেন তাদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানাচ্ছি। রাস্তার যানজট রোধে পুলিশ পদক্ষেপ নেবে। বছরব্যাপী সারা দেশে সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠান আয়োজিত হবে। সে জন্য সারা দেশে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এক প্রশ্নের উত্তরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মুজিব জন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠান সবার। এই অনুষ্ঠান নিয়ে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি হওয়ার মতো কিছু দেখছি না। এ ধরনের কোনো পরিস্থিতি তৈরি হবে না।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক কামাল আব্দুল নাসের চৌধুরী বলেন, করোনার কারণে সবাইকে অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো সম্ভব নয়। মোট চার দিনের প্রতি দিন ৫শ’র মতো অতিথিকে আমন্ত্রণ জানানো হবে। ৪ দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান সরাসরি অংশ নেবেন। এছাড়া বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন।
সূত্র : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম