মোবাইল ফোনের দামদর নিয়ে স্কুলছাত্রকে রক্তাক্ত করলো দোকানি

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুর পৌরশহরে মোবাইল ফোনের দামদর নিয়ে মতিন মিয়া (১৮) নামের এক স্কুল ছাত্রকে ছুরিকাঘাত করে গুরুতর করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে শহরের মোবাইল মার্কেটে এ ঘটনাটি ঘটেছে। রক্তাক্ত অবস্থায় ওই ছাত্রকে জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।
পুলিশ ও প্রত্যেকদর্শীরা জানান, শহরের পৌর পয়েন্ট এলাকার নিকটবর্তী মোবাইল মার্কেটে ‘মোবাইল বাজার’ নামের একটি ফোনের দোকানে মোবাইল ফোন কিনতে যায় জগন্নাথপুর এলাকার বাসিন্দা রজব আলীর ছেলে স্কুল ছাত্র মতিন মিয়া। এসময় মোবাইলের দামদর নিয়ে দোকানি কামরান আহমদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় তার। একপর্যায়ে দোকানদার কামরান রাগান্বিত হয়ে দোকানে থাকা ধারালো এন্টিকাটার ছুরি দিয়ে মতিনের পেটে ও ডান হাতে আঘাত করে রক্তাক্ত করে। ওই সময় লোকজন এগিয়ে এসে আহতাবস্থায় স্কুল ছাত্রকে হাসপাতাল নিয়ে যান। এ ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। দোকাদান কামরান আহমদ শহরের ইকড়ছই এলাকার মৃত কনাই মিয়ার ছেলে।
জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা. সুপ্রিয়া রানী রায় জানান, রাত ৮টা ৪০ মিনিটের দিকে রোগির স্বজনরা তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে আসেন। তার পেটে ও ডান হাতের উপরের অংশে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে।
জগন্নাথপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) দ্বিপঙ্কর জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, মোবাইলফোনের দামদর নিয়ে দশম শ্রেণীর এক ছাত্রকে রক্তাক্ত করা হয়েছে। হামলাকারী পালিয়েছে। এ ঘটনায় থানায় এখনো কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি।