মৎস্য অধিদপ্তরের অভিযানে জেলেদের হামলা, আহত ৪

জামালগঞ্জ প্রতিনিধি
জামালগঞ্জ উপজেলায় অবৈধ চায়না দুয়ারী কারেন্ট জাল দিয়ে মাছ ধরার সংবাদে অভিযান চলাকালীন সময়ে জেলেদের হামলায় ৪ জন আহত হয়েছেন।
আহতরা হলেন— নিতাই দেবনাথ, ফরহাদ হোসেন, আব্দুল মুকিত ও নৌকার মাঝি মহিউদ্দিন। এদিকে সংবাদ পেয়ে জামালগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে জেলেরা পালিয়ে যায়। অভিযানে ৪০ হাজার টাকার চায়না দুয়ারীর জাল জব্দ করা হয়।
সোমবার বিকালে উপজেলা সাচনা বাজার ইউনিয়নের রাধানগর সোনাপুর গ্রামের পাশে বুড়ি ডাকুয়া হাওরে এই ঘটনা ঘটে।
জামালগঞ্জ মৎস্য অফিস সূত্রে জানা যায়, সোমবার বিকালে থানা পুলিশের দুই সদস্য নিয়ে অভিযানে যান মৎস্য কর্মকর্তা সুনন্দা রাণী মোদক। বুড়ি ডাকুয়া হাওরে রাধানগর সোনাপুর গ্রামের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় অর্ধশত নারী পুরুষ মৎস্য কর্মকর্তা ও পুলিশের সাথে থাকা আরেকটি নৌকায় থাকা তিনজন এবং বহনকারীর নৌকার চালককে ঘিরে ধরে। এসময় তারা পাঁচ হাজার পাঁচশত টাকা এবং সাচনাবাজার ও দুলর্ভপুর থেকে জব্দকৃত জালগুলো ছিনিয়ে নেয়।
জানা যায়, সোনাপুর গ্রামের মজার আলীর ছেলে কবির আহমদ (৪০) জলিল মিয়া, জলিল মিয়ার ছেলে লাল মিয়া (৩৫) ও আবুল লেইছ সকল জেলেদের সাথে নিয়ে হামলা করে। পরে সংবাদ পেয়ে জামালগঞ্জ থানা থেকে দুইজন এস আই সহ দশজন ফোর্স গিয়ে তাদেরকে উদ্ধার করে এবং চল্লিশ হাজার টাকা মূল্যের চায়না দুয়ারী জাল জব্দ করে।
উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সুনন্দা রাণী মোদক জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জামালগঞ্জ থানার দুইজন পুলিশ সহ একটি নৌকায় এবং আরেকটি নৌকার মাঝি সহ চারজনকে নিয়ে অভিযান চালানোর সময় আমাদের উপর লাঠি সোটা নিয়ে হামলা চালায় জেলেরা। আমার সাথে থাকা অপর নৌকাটির চারজনকে আটক করে মারধর করে নৌকায় থাকা জব্দকৃত জালগুলা ছিনিয়ে নেয়। তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ্পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থলে জাওয়ার পর তারা দৌঁড়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।