রথ যাবে না রাজপথে, সব স্বাস্থ্যবিধি মেনে আজ পালিত হবে রথ উৎসব

স্টাফ রিপোর্টার
করোনা প্যানডেমিকের কারণে সারা দেশের ন্যায় রথযাত্রা উৎসব অনাড়ম্বরভাবে পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শ্রীশ্রী জগন্নাথ জিউর মন্দির এবং শ্রীশ্রী কালাচাঁন ও গোপাল জিউর আখড়া কর্তৃপক্ষ। এবারও মন্দির থেকে রাজপথে বের হবে না রথ। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত দর্শনার্র্থি শুধুমাত্র মন্দির প্রাঙ্গণে প্রবেশ করতে পারবেন। মন্দির অঙ্গনের সীমানায় রথটানা সীমাবদ্ধ থাকবে। আগামী ২০ জুলাই উল্টোরথের মধ্যে দিয়ে উৎসব শেষ হবে।
জানা যায়, স্নানযাত্রায় স্নানের পর শারীরিক অসুস্থতার জন্য শ্রীজগন্নাথ অনসর কাল কাটান। স্নানযাত্রায় স্নান করার পর শ্রীজগন্নাথ অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং ভক্তদের থেকে নিভৃতে অনসর কালে চিকিৎসকের অধীনে চিকিৎসাধীন থেকে এক পক্ষকাল চিকিৎসা এবং সেবায় সুস্থ হয়ে ওঠেন। সুস্থ হয়ে প্রথমেই মাসির বাড়ি বেড়াতে যান। বেড়াতে যাওয়ার উৎসবই শুভ রথযাত্রা।
জগন্নাথবাড়ি মন্দির পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক বিজয় তালুকদার বিজু বলেন, শুধুমাত্র শাস্ত্রীয় বিধি বিধান মেনে লৌকিকতা পরিহার করে সীমিত আয়োজনে এবার উদযাপিত হবে জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা। এজন্য আমরা জনসংযোগ, প্রচারণা, ব্যানার, পোস্টার, লিফলেট করিনি। প্রশাসনকে এ বিষয়ে অবগত করেছি।
তিনি বলেন, রবিবার সকাল থেকেই রথযাত্রার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়েছে। রাত ৮.১১ মিনিটে দ্বার উন্মোচন করা হবে। আজ সোমবার দুপুর আড়াইটা থেকে ৩ টার মধ্যে মন্দির প্রাঙ্গণেই জগন্নাথ দেব কে রথে তুলে টান দেয়া হবে।
ষোলঘর আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইসকন) মন্দির, শ্রীশ্রী কালাচাঁন ও গোপাল জিউর আখড়ার পরিচালক রাজশ্যাম গোপাল দাশ ব্রহ্মচারী বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে রথযাত্রার সকল কার্যক্রম মন্দির প্রাঙ্গণেই সীমাবদ্ধ থাকবে।