রোগী বহনকারী যানবাহন চলাচলেও প্রতিবন্ধকতা

কামরান আহমেদ
সুনামগঞ্জের ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালের সামনের সড়ক ও ফুটপাত অবৈধভাবে দখল করে দোকানপাট গড়ে তোলা হয়েছে। এতে রোগী, পথচারী ও যানবাহন চলাচল বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। নষ্ট হচ্ছে হাসপাতালের পরিবেশও। হাসপাতালের সামনে থেকে এসব অবৈধ দোকানপাট দ্রুত উচ্ছেদ করার দাবি রোগী ও পথচারীদের।
স্থানীয় বাসিন্দা ও পথচারীদের অভিযোগ, সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রতিদিন হাজারো রোগী ও তাঁদের স্বজনরা আসা-যাওয়া করেন। হাসপাতালে আসা রোগীসহ পথচারীদের ঝুঁকি নিয়ে ফুটপাত ছেড়ে সড়কের ওপর দিয়ে চলাচল করতে হয়। দখলের কারণে সড়ক সরু হয়ে যাওয়ায় যানবাহন চলাচলে সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। ব্যস্ততম সড়কটিতে দিনের বেশিরভাগ সময় যানজট লেগেই থাকছে।
এছাড়াও অবৈধ দোকানপাটের কারণে সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীদের কলেজে আসা যাওয়ার সময় প্রতিনিয়ত পড়তে হয় নানা প্রতিবন্ধকতায়।
সরেজমিনে দেখা যায়, হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনের সড়ক ও ফুটপাত দখল করে অস্থায়ী অনেক দোকান গড়ে উঠেছে। রয়েছে চা, পান ও খাবারের দোকান। এছাড়াও বসে কিছু ভাসমান দোকানও।
সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের অনার্স বাংলা বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী মুহিত জানায়, কলেজে যাওয়ার মূল সড়ক এটি। কিন্তু সড়কের উপর দোকানপাট গড়ে ওঠায় আমাদের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হয়।
হাসপাতালে রোগী নিয়ে আসা এক ভুক্তভোগী জানান, রোগী নিয়ে এসে হাসপাতালের সামনে গাড়ি থামাতেই এক দোকানীর সাথে বাকবিত-া হয় চালকের। শেষে হাসপাতাল থেকে কিছুটা দূরে গাড়ি রেখে রোগী নিয়ে আসতে হয়েছে। তিনি বলেন, দখলের কারণে সড়ক সরু হয়ে যাওয়ায় গাড়ি চলাচলে সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। এছাড়াও সড়কটিতে যানজট লেগেই থাকছে। দ্রুত এই সমস্যা সমাধানের জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা এই বিষয়টি একটা সভায় পৌরসভার মেয়রকে অবগত করেছি। তিনি আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন, ফুটপাতের অবৈধ দখল উচ্ছেদ করা হবে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী মীর মোশাররফ হোসেন বলেন, মেডিকেলের সামনের সড়কের নির্মাণ কাজ এখন চলমান আছে। আগামী ১০-১৫ দিনের মধ্যে এসব অবৈধ দোকানপাট উচ্ছেদ করা হবে।