লালমনিরহাটে পুড়িয়ে হত্যার প্রতিবাদে সমাবেশ

স্টাফ রিপোর্টার
লালমনিরহাটের পাটগ্রামে ধর্ম অবমাননার গুজব ছড়িয়ে আবু ইউনুস মোহাম্মদ শহিদুন্নবী জুয়েল কে পিটিয়ে হত্যা ও আগুনে পুড়ানোর প্রতিবাদে সমাবেশ করেছে সুনামগঞ্জের প্রগতিশীল সংগঠন। রোববার বেলা ১১ টায় শহরের আলফাত স্কয়ারে ৬ টি বাম সংগঠন এই প্রতিবাদ কর্মসূচির আয়োজন করে।
জেলা উদীচী’র সভাপতি শীলা রায়’র সভাপতিত্বে ও জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আসাদ মনি’র সঞ্চলনায় প্রতিবাদ কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা খেলাঘর আসর’র সভাপতি বিজন সেন রায়, জেলা উদীচীর সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, জেলা মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শরীফা আশরাফি সম্পা, জেলা যুব ইউনিয়নের সভাপতি মো. আবু তাহের মিয়া, জেলা খেলাঘর আসর’র সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ, জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি দুর্যোধন দাস দুর্জয় প্রমুখ।
প্রতিবাদ কর্মসূচিতে বক্তারা বলেন, লালমনিরহাটের পাটগ্রামে ধর্ম অবমাননার গুজব ছড়িয়ে ধর্মপ্রাণ আবু ইউনুস মোহাম্মদ শহিদুন্নবী জুয়েল নামে একজনকে পিটিয়ে হত্যা করে আগুনে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। শহীদুন নবী জুয়েল পবিত্র ধর্মগ্রন্থের অবমাননা করেন নি। বরং হাত থেকে নিচে পড়ে যাওয়ায় গ্রন্থটি তিনি বুকে তুলে নিয়ে সালাম করে চুম্বন করেছেন। তাকে মিথ্যা গুজব ছড়িয়ে পিটিয়ে ও জ্বালিয়ে হত্যা করা হয়েছে।
বক্তারা বলেন, জুয়েল অনেক সহজ সরল ছিলেন। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়তেন, কোরান-হাদিস পড়তেন। প্রত্যেক বছরই তিন-চারবার করে কোরান খতম দিতেন। করোনার সময় কয়েকবার কোরান খতম দিয়েছেন। আগামী বছর স্বামী স্ত্রী হজে যাওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছিলেন। অথচ একদল সন্ত্রাসী পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যা করেছে। যারা এরকম ঘটনা ঘটিয়েছে তারা মুসলিম হতে পারে না। তারা হলো সন্ত্রাসী। তাদেরকে বিচারের আওতায় এনে সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানান বক্তারা।