লুটেরাদের দল থেকে তাড়াতে হবে- এমএ মান্নান

স্টাফ রিপোর্টার ও দিরাই প্রতিনিধি
পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি বলেছেন, সারা দুনিয়ার মতো বাঙালি জাতিকে নিয়ে এগুতে চাই আমরা। সেজন্য চাই উন্নয়ন। শেখ হাসিনার হাত ধরে সেই উন্নয়ন পৌঁছে যাচ্ছে গ্রামে গ্রামে। ১৮ কোটি মানুষের ঘরে বিদ্যুৎ এসেছে। পদ্মাসেতু হচ্ছে। পানির নিচ দিয়ে টানেল হচ্ছে।
রবিবার বিকালে দিরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আছাব উদ্দিন সরদার স্মরণে শোকসভায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সমিরণ সরকারের সভাপতিত্বে সেন মার্কটের সামনের চত্বরে আয়োজিত সমাবেশে মন্ত্রী বলেন, কাজের সময় এক থাকতে হবে, তবে যেসব নেতা সুযোগ সন্ধানী তাদের পরিষ্কার করতে হবে, কিছু নেতা ব্যবসা করবার জন্য রাজনীতি করে, তাদের চিহিৃত করতে হবে, তারা দুর্বৃত্ত, দল থেকে এদের বের করে দিতে হবে, এজন্য সকলের সহযোগিতা চান মন্ত্রী।
মন্ত্রী বলেন, কাজের সময় ঝগড়া বিবাধ করা ভালো নয়, কাজের সময় চাই ঐক্য। একজন নেতা শুক্রবার বলে গেছেন, আমি না কি সেন বাবুর বাসভবনে কুকুরের জন্য বিস্কুট নিয়ে যেতাম, স্কুলের বাচ্চা ছেলের মতো কথা বললে উন্নয়ন হবে না, আমি কি করে সেন বাবুর বাসভবনে বিস্কুট নিয়ে যাই। সেন বাবুর বাসভবনে অনেকবার গিয়েছি, তিনি আমাকে স্নেহ করতেন, এসব বক্তব্য যারা দেয় তাদের নিয়ে চিন্তা করতে হবে, যারা আওয়ামী লীগের নাম ব্যবহার করে রোজগার করতে আসে, তাদের দল থেকে তাড়াতে হবে, ইউনিয়ন নির্বাচনের আগে এরা মনোনয়ন বিক্রি করে, এই ব্যবসায়ীদের দলে রাখা যাবে না, দিরাই-শাল্লার মানুষ অনেক সচেতন, দিরাই-শাল্লা থেকেই আওয়ামী লীগের সংস্কার শুরু হোক, আমরা পরিস্কার রাজনীতি চাই, স্বচ্ছ রাজনীতি চাই।
তিনি বলেন, সুনামগঞ্জে রেল আসবে, বিমানবন্দর হবে। রেললাইন আমার কিংবা কোন এমপি সাহেবের হুকুমে হবে না। যেদিকে মানুষের বসবাস, সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা যেদিকে বলবে, সেদিকেই রেললাইন যাবে। তিনি বলেন, দিরাইয়ের মানুষ আজ ৭ টি উন্নয়ন কাজের অনুরোধ করছেন, আমি বলবো শুধু এই ৭ টি নয় আরও ৭০ টি কাজ করতে হবে।
দিরাই উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি সমীরণ দাসের সভাপতিত্বে ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রঞ্জন রায়ের সঞ্চালনায় শোক সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল হুদা মুকুট, সাবেক যুগ্ম সচিব মিজানুর রহমান, জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি রেজাউল করিম শামীম, সহসভাপতি সৈয়দ আবুল কাশেম, সহসভাপতি অ্যাডভোকেট অবণী মোহন দাস, জেলা আওয়ামীলীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল, দিরাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মঞ্জুর আলম চৌধুরী, দিরাই পৌরসভার সাবেক মেয়র মোশাররফ মিয়া, দিরাই উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোহন চৌধুরী, যুবলীগ নেতা শাহ আলম সরদার প্রমুখ।