শান্তিগঞ্জে চুরি যাওয়া ১১ গরু উদ্ধার, গ্রেফতার ৩

শান্তিগঞ্জ প্রতিনিধি
শান্তিগঞ্জ থানা পুলিশের অভিযানে উপজেলার ডুংরিয়া ও নোয়াগাঁও (কাকিয়ারপাড়) এলাকা থেকে চুরি যাওয়া ১১টি গরু উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। এসময় চোর চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতারকৃতরা হলেন জগন্নাথপুর উপজেলার লাউতাল এলাকার ছলিম উল্লার পুত্র মো. চন্দন মিয়া (৪২), চন্দন মিয়ার পুত্র সিহাব উদ্দিন (২০) ও নেত্রকোনা জেলার আটপাড়া থানার ইসাইল গ্রামের রবি মিয়ার পুত্র জীবন মিয়া (২৮)।
রবিবার দিবাগত রাতে শান্তিগঞ্জ থানা পুলিশের সেকেন্ড অফিসার তপন কান্তি দাশ, সুব্রত কুমার দাস, শফিউল ইসলামসহ সঙ্গীয় ফোর্স অভিযান চালিয়ে জগন্নাথপুর উপজেলার পাটলি ইউনিয়নের লাউতাল, নুরবালা এলাকা থেকে চুরি যাওয়া গরু উদ্ধার করেন।
জানা যায়, উপজেলার জয়কলস ইউনিয়নের ডুংরিয়া গ্রামের কবির মিয়ার গোয়াল ঘর থেকে ৭টি গরু ও নোয়াগাঁও এলাকার সুরুজ আলীর গোয়াল ঘর থেকে ৪টি গরু চুরি হয়। এরপর গরুর মালিকরা থানায় মামলা করলে পুলিশ সুপারের দিকনির্দেশনায় ৩৮ ঘন্টার অভিযানে চুরি যাওয়া গরু উদ্ধার ও চোর চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় শান্তিগঞ্জ থানা পুলিশ। উদ্ধারকৃত গরু মালিকদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
শান্তিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খালেদ চৌধুরী বলেন, পুলিশ সুপার মহোদয়ের নির্দেশে ৩৮ ঘন্টার বিশেষ অভিযানের মধ্যদিয়ে চুরি যাওয়া গরু উদ্ধার ও ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত গরু মালিকদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। গরু চুরি রোধে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।