সংস্কৃতিকর্মী-সাংবাদিক জয়ন্ত কুমার সরকার স্মরণে শোকসভা

স্টাফ রিপোর্টার
সংস্কৃতিকর্মী-সাংবাদিক জয়ন্ত কুমার সরকার স্মরণে শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকাল ৪টায় দিরাই শিল্পকলা একাডেমিতে জয়ন্ত কুমার সরকার স্মৃতি পরিষদের উদ্যোগে শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়।
পরিষদের সভাপতি রণধীর চক্রবর্তী’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আপেল মাহমুদ’র সঞ্চালনায় শোক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন শাহ বাউল আবদুল করিম পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি করিম পুত্র শাহ নুর জালাল।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন দিরাই উপজেলা সমবায় অফিসার রাজমনি সিংহ, জয়ন্ত কুমার সরকারের পিতা জোতিষ চন্দ্র সরকার, চরনারচর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান রতন কুমার দাস, দিরাই শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সুদ্বীপ্ত দাস, দিরাই প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সাংবাদিক জিয়াউর রহমান লিটন, সাংবাদিক প্রসান্ত সাগর দাস, প্রতাব বান্ধা পরিষদের সভাপতি জয়ন্ত কুমার পল্টন, শান্তিগঞ্জ উপজেলা উদীচীর সভাপতি শ্যামল দেব, শিক্ষক নিরেশ চন্দ্র রায়, প্রভাষক মিজানুর রহমান পারভেজ, প্রভাষক জিএম আরিফুজ্জামান, জয়ন্ত কুমার সরকার পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্লাবন দাস পিংকু, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অরন্য কিরণ বর্মন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন জয়ন্ত কুমার সরকারের সহধর্মিণী অপি রানী সরকার, জয়ন্ত কুমার সরকারের ছোট ভাই জুষেন চন্দ্র সরকার, পরিষদের সহসভাপতি সজীব তালুকদার, সহ সভাপতি শ্যামল চক্রবর্তী, যুগ্ম সম্পাদক দিপু তালুকদার, সহ সাধারণ সম্পাদক অনন্ত সূত্রধর, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক অনুপম দাস, দপ্তর সম্পাদক ঝুটন সূত্রধর, সহ প্রচার সম্পাদক জন সরকার, সহ সাংস্কৃতিক সম্পাদক আবুল কাশেম মিলাদ, সদস্য কিপেশ বিশ্বাস।
শোকসভায় জয়ন্ত কুমার সরকারের পিতা জোতিষ চন্দ্র সরকার ছেলের আত্মার শান্তির জন্য প্রার্থনা করার জন্য সকলকে অনুরোধ করেন।
এরপর এতিমদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।
প্রসঙ্গত, দৈনিক সুনামগঞ্জের খবর এর দিরাই উপজেলা সংবাদদাতা জয়ন্ত কুমার সরকার গত ১৮ সেপ্টেম্বর রবিবার সকালে দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তিনি পরলোকগরণ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৩৪ বছর। জয়ন্ত কুমার সরকারের বাড়ি দিরাই উপজেলার রফিনগর ইউনিয়নের আলীপুর গ্রামে। তিনি দিরাই পৌর শহরের উপজেলা রোড এলাকার আনোয়ারপুরে পরিবার নিয়ে থাকতেন। তার পিতা অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক জ্যোতিষ চন্দ্র সরকার এবং মাতার নাম মঞ্জু রানী সরকার।