- সুনামগঞ্জের খবর » আঁধারচেরা আলোর ঝলক - https://sunamganjerkhobor.com -

সবচেয়ে বেশি নির্বাচনী ব্যয় আওয়ামী লীগ প্রার্থীর

স্টাফ রিপোর্টার
দোয়ারাবাজার উপজেলা পরিষদ উপ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪ প্রার্থী। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল ইসলাম, জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী আবু সালেহ, স্বতন্ত্রের মোড়কে বিএনপি নেতা এম এ বারী ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী দেওয়ান আল তানভীর আশরাফী চৌধুরী নির্বাচন করছেন। আগামী ২৭ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার উপ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ঐ দিন সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহণ করা হবে।
গত ১৯ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের উপসচিব (নির্বাচন পরিচালনা-২) মো. আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত এক আদেশে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনের মাধ্যমে জনস্বাস্থ্য নিশ্চিত করে নির্বাচনী প্রচারণা, ভোট গ্রহণ ও নির্বাচনী অন্যান্য কার্যক্রম গ্রহণ করার নির্দেশনা দেয়া হয়। নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন জেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার হিসাবে দায়িত্ব পালন করবেন দোয়ারাবাজার উপজেলার নির্বাচন অফিসার।
নির্বাচনী ব্যয় নির্বাহের জন্য অর্থ প্রাপ্তির সম্ভাব্য উৎসের বিবরণী অনুযায়ী, নির্বাচনে সবচেয়ে বেশি ব্যয় করবেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নুরুল ইসলাম (নৌকা), ৭ লক্ষ টাকা। আর কম ব্যয় করবেন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী এম এ বারী (আনারস), দেড় লক্ষ টাকা। এদিকে জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী আবু সালেহ (লাঙ্গল) ব্যয় করবেন ৪ লক্ষ টাকা। অপরদিকে আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী দেওয়ান আল তানভীর আশরাফী চৌধুরী (কাপ-পিরিচ) ব্যয় ধরেছেন ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা।
আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হিসাবে নির্বাচন করছেন নুরুল ইসলাম। নির্বাচনী হলফনামায় তিনি নিজেকে ঠিকাদারী ব্যবসায়ী হিসেবে উল্লেখ করেছেন। নির্বাচনী ব্যয় নির্বাহের জন্য ঠিকাদারী ব্যবসা থেকে প্রাপ্য সম্ভাব্য অর্থের পরিমাণ উল্লেখ করেছেন ৭ লক্ষ টাকা। নির্বাচনী ব্যয় নির্বাহের জন্য তিনি আত্মীয় স্বজনদের কাছ থেকে ধার বা স্বেচ্ছা প্রণোদিত কোন দান নেন নি।
জাতীয় পার্টি মনোনীত লাঙল প্রতীকের প্রার্থী হিসাবে নির্বাচন করছেন আবু সালেহ। তিনি নিজেকে ব্যবসায়ী বলে উল্লেখ করেছেন। নির্বাচনী ব্যয় নির্বাহের জন্য নিজ আয় থেকে প্রাপ্য সম্ভাব্য অর্থের পরিমাণ উল্লেখ করেছেন ২ লক্ষ টাকা। এছাড়াও আত্মীয় স্বজনদের নিকট থেকে স্বেচ্ছাপ্রণোদিত দান হিসেবে সম্ভাব্য অর্থের পরিমাণ ২ লক্ষ বলে উল্লেখ করেছেন।
স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন এম এ বারী। নির্বাচনী হলফনামায় আয়ের উৎস উল্লেখ করেছেন বাসা ভাড়া। নির্বাচনী ব্যয় নির্বাহের জন্য বাসা ভাড়া থেকে প্রাপ্য অর্থের পরিমাণ তিনি উল্লেখ করেছেন ৫০ হাজার টাকা। এছাড়াও এজন্য আত্মীয় স্বজনদের নিকট থেকে স্বেচ্ছাপ্রণোদিত দান হিসেবে সম্ভাব্য অর্থের পরিমাণ ১ লক্ষ টাকা উল্লেখ করেছেন।
আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন দেওয়ান আল তানভীর আশরাফী চৌধুরী। হলফনামায় আয়ের উৎসব হিসাবে তিনি ব্যবসা ও কৃষি খাত উল্লেখ করেছেন। নির্বাচনী ব্যয় নির্বাহের জন্য এই খাত থেকে তিনি ১ লক্ষ টাকা ব্যয় করবেন। এছাড়াও আত্মীয় স্বজনদের কাছ থেকে এ জন্য আরও ধার বা কর্জ বাবদ প্রাপ্য অর্থের পরিমাণ তিনি উল্লেখ করেছেন ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা।
জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুরাদ উদ্দিন হাওলাদার বললেন, দোয়ারাবাজার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের মৃত্যুজনিত কারণে এই উপজেলায় উপ-নির্বাচন হচ্ছে। নির্বাচনে ভোট গ্রহণের জন্য সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করা হচ্ছে। এই উপজেলায় মোট ভোটার এক লাখ ৬৯ হাজার ২২৬ জন।

  • [১]