সুনামগঞ্জ-সাচনা সড়কে দুর্ভোগ

স্টাফ রিপোর্টার
সুনামগঞ্জ – সাচনাবাজারে সড়কে জনদুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে। সড়কের নিদিরচর এলাকায় বিকল্প সড়ক পথ ধসে পড়ায় গাড়ি চালক ও যাত্রীরা চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন। এই অংশে এক সপ্তাহ গাড়ি চলাচল বন্ধ ছিল। বন্যার পর সড়কের সংস্কার কাজ দায়সারা ভাবে করা হয়েছে। এ কারণে ঝুঁকি নিয়ে চলছে যানবাহন।
সরেজমিনে দেখা যায়, নিদিরচর এলাকায় সড়ক ও জনপথ বিভাগের আওতাধীন সেতুর কাজ চলমান রয়েছে। সুনামগঞ্জ-সাচনা সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে সেতুর পাশে বিকল্প সেতু নির্মাণ করা হয়েছে। বিকল্প সেতু দিয়েই যানবাহন চলাচল করছিলো। উজানের ঢল ও ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে সৃষ্ট বন্যায় এই বিকল্প সেতু ও সংযোগ সড়ক ডুবে যায়। সেতুর অনেক অংশ ঢলের কারণে ভেঙে যায়। একারণে প্রায় এক সপ্তাহ সাচনা ও সুনামগঞ্জের সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ছিলো। এখন যোগাযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক হলেও এই অংশে যাত্রী ও পরিবহন চালকদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
নিদিরচর গ্রামের সালমান হেসেন বলেন, ‘কয়দিন আগে বন্যায় রাস্তা ডুইব্বা যায়। গাড়ি চলাচল বন্ধ ছিলো। আমরা নৌকায় মানুষরে পাড় করে দিই। রাস্তার কাজ হওয়ায় এখন গাড়ি চলে। তবে বালা কইরা ঠিক করছে না। রাস্তাটা আরও ঠিক করা দরকার।
একই গ্রামের বাসিন্দা শামিম আহমেদ বললেন, বন্যার পর রাস্তার কাজ হলেও মানুষের দুর্ভোগ কমছে না। রাস্তাটা আরও উঁচু করা দরকার।
ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেল চালক রনি বললেন, আগাম বন্যায় বিকল্প সড়ক পথ ধসে যাওয়ায় জনগণ খুব কষ্টে যাতায়াত করতে হয়েছে। রাস্তার কাজ দায়সারাভাবে করা হয়েছে। এজন্য ঠিকমতো গাড়ি চলাচল করতে পারে না।
এবিষয়ে সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুল ইসলাম বললেন, বন্যায় বিকল্প সেতু ও সংযোগ সড়কের ক্ষতি হয়েছে। ঠিকাদারকে বলে দেওয়া হয়েছে, সড়কটি যান চলাচলের উপযোগী করে দেয়ার জন্য।