সেই আফজাল কারাগারে

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুর উপজেলার আশারকান্দি ইউনিয়নের একটি গ্রাম থেকে বিস্ফোরক তৈরির সরঞ্জাম, বিস্ফোরক পাউডার ও ইলেকট্রনিক ডিভাইস উদ্ধারের ঘটনায দায়েরকৃত মামলার প্রধান আসামি আফজাল হোসেন (৩০) কে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।
বুধবার পুলিশ তাকে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জগন্নাথপুর থানার পরিদর্শক তদন্ত সুশংকর পাল বলেন, সুনামগঞ্জের আমল গ্রহণকারী হাকিম আদালতে বুধবার আফজল হোসেন কে ১০ দিনের রিমান্ডের জন্য আবেদন করা হয়। আদালত তাকে জেল হাজতে পাঠানোর আদেশ দেন। রিমান্ডের বিষয়ে এখনো কোন আদেশ পাওয়া যায়নি।
জগন্নাথপুর থানা পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্র জানায়, আশারকান্দি ইউনিয়নের দিঘলবাক আটঘর গ্রামের আফজাল হোসেনের বিরুদ্ধে একটি মামলার সমন নিয়ে শুক্রবার জগন্নাথপুর থানা পুলিশ তার বাড়িতে গেলে আফজল হোসেন পুলিশকে তার ঘরে ঢুকতে বাধা দেন। এসময় পুলিশ বাড়িতে বিপুল পরিমাণ ইলেকট্রনিকস ডিবাইস, সাদা পাউডার, সার্কিট দেখতে পায়। এতে সন্দেহ হলে রোববার আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বিস্ফোরক তৈরির সরঞ্জাম, বিস্ফোরক পাউডার, ও বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ডিভাইস উদ্ধার করে। এঘটনায় জগন্নাথপুর থানার উপ পরিদর্শক জিয়া উদ্দিন বাদী হয়ে বিস্ফোরক আইনে থানায় মামলা দায়ের করেন। যার প্রেক্ষিতে রবিবার রাতে আফজাল হোসেনের বাবা আখলাকুর রহমান ভাই আমজাদুর রহমান কে গ্রেপ্তার করা হয়। মঙ্গলবার আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাকুরা গ্রাম থেকে আফজাল কে গ্রেপ্তার করে।