সেনাবাহিনীর তত্বাবধানে নির্মিত আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর হস্তান্তর

জামালগঞ্জ প্রতিনিধি
জামালগঞ্জ উপজেলার ছয়হারা গ্রামে সেনাবাহিনীর তত্বাবধানে নির্মিত আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে। আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের আওতায় নির্মিত ঘর মঙ্গলবার বিকাল ৫টায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে হস্তান্তর করা হয়।
সিলেট সদর দপ্তর ১৭ পদাতিক ডিভিশন নির্মাণাধীন ইউনিট ৪২ বীরের তত্বাবধানে প্রকল্পটির কাজ করা হয়।
জানা যায়, ছয়হারা গ্রামের পাশে ৪০টি গৃহহীন পরিবারকে আশ্রয় দেওয়ার লক্ষ্যে ২০১৯ সালে কজ শুরু হয়েছিল। ৮টি ব্যারাকে ৪০টি আইসিট ব্যারাক হাউজে মোট ৪০ পরিবার বসবাস করতে পারবে। সেগুলোর প্রতিটি মেঝে পাকা ও সম্পূর্ণ টিন দ্বারা আচ্ছাদিত। বসবাসকারীর সুবিধার্থে টয়লেট ও বিশুদ্ধ পানির জন্য ২টি গভীর নলকূপ স্থাপন করা হয়েছে।
আশ্রয়ন প্রকল্পের গৃহ হস্তান্তরকালে সিলেট সেনানিবাসের লে. কর্ণেল মো. আলমগীর হোসেন পিপি এম পিএসপি ইউনিট ৪২ বীর বলেন, আশ্রয়ণের অধিকার, শেখ হাসিনার উপহার, এই শ্লোগানে গৃহহীন পরিবারের বাসস্থানের সুযোগ সৃষ্টিতে সরকার আশ্রয় প্রকল্প তৈরী করেছেন। এই প্রকল্পের আওতায় আজকে পাকনার হাওরের বুকে ছয়হারা গ্রামের পাশে সেনাবাহিনীর তত্বাবধানে নির্মিত আশ্রয়ণ প্রকল্পটি উপজেলা প্রশাসনের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
জামালগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিশ^জিত দেব বলেন, অত্যন্ত পরিচ্ছন্ন ভাবে এই প্রকল্পটির কাজ সম্পন্ন করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। এজন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে ধন্যবাদ জানাই। উনারা গুণগতমান বজায় রেখে কাজ করেছেন। আজ আমাদের কাছে প্রকল্পটি হস্তান্তর করা হয়েছে। আমাদের উপজেলা টাস্কফোর্স কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক ৪০টি পরিবারকে গৃহ প্রদান করা হবে। আশা করি এবছরের মধ্যেই পরিবারগুলো আশ্রয়ণ প্রকল্পে উঠতে পারবে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো: এরশাদ হোসেন, ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান করুণা সিন্ধু তালুকদার, ফেনারবাঁক ইউপি চেয়ারম্যান কাজল চন্দ্র তালুকদার সহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।