স্বল্প মেয়াদী বীজধানের সরবরাহ কম/ দ্রুত প্রণোদনার বীজ সরবরাহের দাবি

আমিনুল ইসলাম, তাহিরপুর
অকাল বন্যার হাত থেকে হাওরের প্রধান ফসল ধানকে রক্ষায় সঠিক সময়ে কৃষকদের মধ্যে প্রণোদনার বীজ সরবরাহের দাবি উঠেছে। একই সঙ্গে তাঁদের চাহিদামতো স্বল্পমেয়াদী বোর ধানের বীজ না দেওয়ায় ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। হাওরাঞ্চলে প্রাকৃতিক দুর্যোগ এড়ানোর লক্ষে কৃষকদের আগাম ফসল উঠানোর জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডসহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তর কৃষকদের উৎসাহ দিয়ে থাকেন বোর ফসল আগাম উঠানোর জন্য কৃষকদের জমিতে স্বল্প মেয়াদী বীজ ধানের চারা রোপন করতে। সে লক্ষ্যে ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট কৃষকদের ঘরে আগাম ফসল তোলার লক্ষে ব্রি-২৮, ব্রি-৬৭, ব্রি-৮৮ ও ব্রি-১০০ ধানের বীজ আবিস্কার করেছে। কিন্তু বাংলাদেশ এগ্রিকালচারাল ডিপার্টমেন্ট কর্পোরেশন (বিএডিসি) কর্তৃক উপজেলার বীজ ডিলারদের স্বল্প মেয়াদী ধানের বীজ সরবরাহ না করে দীর্ঘ মেয়াদী ধানের বীজ উপজেলা পর্যায়ে বীজ ডিলারদের নিকট সরবরাহ করছে।
তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট বাজারের বিএডিসি বীজ ডিলার নুর মিয়া বলেন, এ পর্যন্ত তাহিরপুর উপজেলায় প্রায় ২০০ মেট্রিক টন বীজ ধান ডিলারদের কাছে এসেছে। এর মধ্যে প্রায় সবই ব্রি-২৯ ও ব্রি- ৮৯ ধানের বীজ। অর্থাৎ ৯০ ভাগই দীর্ঘ মেয়াদী ধানের ভাগ বীজ।
শ্রীপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের বীজ ডিলার ও তাহিরপুর উপজেলার বিএডিসি বীজ ডিলার সমিতির সভাপতি দীগেস তালুকদার বলেন, বিএডিসি থেকে প্রণোদনার বীজ যে সময়ে কৃষকদের দেয়া হয় তখন আর কৃষকদের হাতে বীজ বপনের সময় থাকে না। তিনি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে প্রণোদনার বীজ কৃষকদের দেয়ার দাবি জানান।
উপজেলার বালিজুড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজাদ হোসেন বলেন, তাহিরপুরে বিগত বছরেও সরকারের প্রণোদনার বীজ ধান যখন দেয়া হয়েছে তখন কৃষকের বীজ ধান বপনের সময় শেষ হয়ে গিয়েছিল। এবছর যেন সেটা না হয়। এখন বীজ বপনের চূড়ান্ত সময় তাই আগামী ১০ দিনের ভিতরে যেন কৃষকদের প্রণোদনার বীজ দেয়া হয়। তিনি আরও বলেন, হাওর এলাকাতে দীর্ঘ মেয়াদী বীজ ধান রোপন করলে অকাল বন্যায় বোর ফসল আগাম বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
তাহিরপুর বাজারের বিএডিসি’র বীজ ডিলার সামায়ুন কবির বলেন, স্বল্প মেয়াদী ধানের বীজ ব্রি-৮৮ এর চাহিদা খুব বেশী কৃষকরা চাইলে আমরা দিতে পারছি না। কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিএডিসি’র কর্তৃপক্ষ তাদের জানিয়েছেন তাদের গোদামে ব্রি-৮৮ বীজ ধানের মজুদ নেই।
সুনামগঞ্জ জেলা বিএডিসি’র উপ পরিচালক সারোয়ার আলম বলেন, এ পর্যন্ত সুনামগঞ্জের ১২টি উপজেলায় প্রায় ৭শ’ মেট্রিক টন ব্রি-২৮ ধানের বীজ বিক্রি করা হয়েছে। তাহিরপুর উপজেলায় ব্রি-২৮ ধানের বীজ কেন কম দেয়া হলো বিষয়টি তিনি খতিয়ে দেখবেন বলে জানান।
তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. রায়হান কবির বলেন, কৃষি প্রণোদনার বীজ ধান আগামী ১৫ দিনের মধ্যে দেয়ার জন্য এবং স্বল্প মেয়াদী ধানের বীজ তাহিরপুরে দেয়ার বিষয়টি তিনি বৃহস্পতিবার বীজ ও সার মনিটরিং কমিটির সভায় আলোচনা করেছেন। সভায় সিদ্ধান্তের বিষয়টি উপজেলা কৃষি অফিসারকে বিএডিসি কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দেয়ার জন্য বলে দেয়া হয়েছে বলে জানান।