হরতালের দুর্ভোগে ছিলেন পথচারীরা

স্টাফ রিপোর্টার
হরতাল চলাকালে সুনামগঞ্জের পথে পথে দুর্ভোগে ছিলেন পথচারীরা। হরতাল সমর্থক হেফাজত কর্মীরা লাঠিসোটা হাতে পথে অবস্থান নিয়ে যানবাহন আটকিয়েছেন। কোথাও বা গাছ বা ব্লক বিছিয়ে পথরোধ করায় ভোগান্তিতে পড়েন পথচারীরা।
জেলার বিশ^ম্ভরপুর থেকে কবির মিয়া নামের একজন ব্যবসায়ী সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য আসছিলেন। পুরো পথ হরতালকারীদের অনুরোধ জানিয়ে আসলেও সুনামগঞ্জ শহরতলির রাধানগর এলাকায় এসে সড়কে ব্লক বিছানো থাকায় ওখান থেকেই ফিরতে হয়েছে তাকে।
শহরতলির নবীনগরের বাসিন্দা সিএনজি চালক আলাল মিয়া ভোর ৬ টায় গ্যাস নেবার জন্য ওয়েজখালী পাম্পে গিয়েছিলেন। ফেরার সময় মল্লিকপুর আব্দুজ জহুর সেতু এলাকায় তাকে আটকায় হরতালের পিকেটাররা। অনুরোধ করার পরও সকাল ১০ টা পর্যন্ত ওখানেই আটকে রাখা হয় তাকে। জানালেন, ওখানে অবস্থান করা পুলিশও তাকে কোন সহযোগিতা করেনি।
রবিবারের হরতাল চলাকালে আদালতের কার্যক্রম অন্যান্য দিনের মতোই চালু ছিল। আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের আইনজীবীরা সহ অনেক আইনজীবী মামলার শুনানীতে অংশ নেন।
ছাতক থেকে সুনামগঞ্জ আদালতে আসেন আব্দুর রহমান নামের একজন বিচারপ্রার্থী। সকাল ৭টায় ছাতক থেকে রওয়ানা দিয়ে ছয়বার পরিবহন বদল করে সকাল সাড়ে ১০টায় শহরের মোহাম্মদপুর এলাকায় পৌঁছান তিনি। পরে ওখান থেকে পায়ে হেটে আসেন আদালত এলাকায়। এভাবে দিনভর দুর্ভোগ ছিল পথযাত্রীদের।
সুনামগঞ্জ সদর থানার ওসি শহিদুর রহমান বললেন, সুনামগঞ্জ শহরের মোড়ে মোড়ে হরতাল চলাকালে পুলিশ মোতায়েন ছিল। কোথাও আইন-শৃঙ্খলার অবনতি ঘটানোর কোন সুযোগ কাউকে দেওয়া হয়নি।